Awesome Image

নিমের গাছের বহুবিধ উপকারিতা যা জানলে অভাক হবেন আপনি-কলিকাতা হারবাল

November 30, 2019

নিম ,ঔষধি গাছ যার ডাল, পাতা, রস, সবই কাজে লাগে। নিম একটি বহু বর্ষজীবি ও চির হরিত বৃক্ষ। আকৃতিতে ৪০-৫০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। এর কান্ড ২০-৩০ ইঞ্চি ব্যাস হতে পারে। ডালের চারদিকে ১০-১২ ইঞ্চি যৌগিক পত্র জন্মে। পাতা কাস্তের মত বাকানো থাকে এবং পাতায় ১০-১৭ টি করে কিনারা খাঁজকাটা পত্রক থাকে। পাতা ২.৫-৪ ইঞ্  
নিম ,ঔষধি গাছ যার ডাল, পাতা, রস, সবই কাজে লাগে। নিম একটি বহু বর্ষজীবি ও চির হরিত বৃক্ষ। আকৃতিতে ৪০-৫০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। এর কান্ড ২০-৩০ ইঞ্চি ব্যাস হতে পারে। ডালের চারদিকে ১০-১২ ইঞ্চি যৌগিক পত্র জন্মে। পাতা কাস্তের মত বাকানো থাকে এবং পাতায় ১০-১৭ টি করে কিনারা খাঁজকাটা পত্রক থাকে। পাতা ২.৫-৪ ইঞ্চি লম্বা হয়। নিম গাছে এক ধরনের ফল হয়। আঙুরের মতো দেখতে এ ফলের একটিই বিচি থাকে। জুন-জুলাইতে ফল পাকে, ফল তেতো স্বাদের।ভারত এবং বাংলাদেশের প্রায় সবত্রই নিম গাছ জন্মে। প্রাপ্ত বয়স্ক হতে সময় লাগে ১০ বছর। নিম গাছ সাধারণত উষ্ণ আবহাওয়া প্রধান অঞ্চলে ভাল হয়। মাটির পিওএই ৬.২-৮.৫ এবং বৃষ্টিপাত ১৮-৪৬ ইঞ্চি ও ১২০ ডিগ্রী ফারেনহাইট তাপমাত্রা নিম গাছের জন্য উপযোগী। নিমের পাতা থেকে আজকাল প্রসাধনীও তৈরি হচ্ছে। কৃমিনাশক হিসেবে নিমের রস খুবই কার্যকর।নিমের কাঠ খুবই শক্ত। এ কাঠে কখনো ঘুণ ধরে না। পোকা বাসা বাঁধে না। উইপোকা খেতে পারে না। এ কারণে নিম কাঠের আসবাবপত্রও তৈরি করা হচ্ছে আজকাল। এছাড়া প্রাচীনকাল থেকেই বাদ্যযন্ত্র বানানোর জন্য কাঠ ব্যবহার করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন- 

এর উত্পাদন ও প্রসারকে উত্সাহ এবং অন্যায়ভাবে নিম গাছ ধ্বংস করাকে নিরুত্সাহিত করছে। নিমের এই গুনাগুনের কথা বিবেচনা করেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা‘একুশ শতকের বৃক্ষ’ বলে ঘোষনা করেছেনিম পাতা সিদ্ধ করে সেই জল দিয়ে স্নান করলে খোসপাচড়া চলে যায়। পাতা বা ফুল বেটে গায়ে কয়েকদিন লাগালে চুলকানি ভালো হয়। পাতা ভেজে গুড়া করে সরিষার তেলের সাথে মিষিয়ে চুলকানিতে লাগালে যাদুর মতো কাজ হয়। নিম পাতার সাথে সামান্য কাঁচা হলুদ পিষে নিয়ে আক্রান্ত স্থানে প্রলেপ আকারে ৭-১০ দিন ব্যবহার করলে খোস-পাঁচড়া ও পুরনো ক্ষতের উপশম হয়। নিম পাতা ঘিয়ে ভেজে সেই ঘি ক্ষতে লাগালে ক্ষত অতি সত্বর আরোগ্য হয়।পেটে কৃমি হলে শিশুরা রোগা হয়ে যায়। পেটে বড় হয়। চেহারা ফ্যকাশে হয়ে যায়। বাচ্ছাদের পেটে কৃমি নির্মূল করতে নিমের পাতার জুড়ি নেই। শিশুরাই বেশি কৃমি আক্রান্তের শিকার হয়। এ জন্য ৫০ মিলিগ্রাম পরিমাণ নিম গাছের মূলের ছালের গুড়া দিন ৩ বার সামান্য গরম জল সহ খেতে হবে। আবার ৩-৪ গ্রাম নিম ছাল চূর্ণ সামান্য পরিমাণ সৈন্ধব লবণসহ সকালে খালি পেটে সেবন করে গেলে কৃমির উপদ্রব হতে রক্ষা পাওয়া যায়। নিয়মিত এক সপ্তাহ সেবন করে যেতে হব। বাচ্চাদের ক্ষেত্রে ১-২ গ্রাম মাত্রায় সেব্য।বহুদি ধরে রূপচর্চায় নিমের ব্যবহার হয়ে আসছে। ত্বকের দাগ দূর করতে নিম খুব ভালো কাজ করে। এছাড়াও এটি ত্বকে ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও কাজ করে। ব্রণ দূর করতে নিমপাতা বেটে লাগাতে পারেন। আবার ঘরে তৈরি নিমের বড়িও খাওয়া যেতে পারে। বড়ি তৈরি করতে নিমপাতা ভালোভাবে ধুয়ে বেটে নিন। এবার হাতে ছোট ছোট বড়ি তৈরি করুন। বড় ডিশে ফ্যানের বাতোসে একদিন রেখে দিন। পরদিন রোদে শুকোতে দিন। নিমের বড়ির জল একেবারে শুকিয়ে এলে এয়ারটাইট বয়ামে সংরক্ষণ করুন। নিমপাতা ফাঙ্গাস ও ব্যাকটেরিয়া বিরোধী। তাই ত্বকের সুরক্ষায় এর জুড়ি নেই। ব্রণের সংক্রমণ হলেই নিমপাতা থেঁতো করে লাগালে ভালো ফল নিশ্চিত। মাথার ত্বকে অনেকেরই চুল্কানি ভাব হয়, নিমপাতার রস মাথায় নিয়মিত লাগালে এই চুলকানি কমে। নিয়মিত নিমপাতার সাথে কাঁচা হলুদ পেস্ট করে লাগালে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি ও স্কিন টোন ঠিক হয়। তবে হলুদ ব্যবহার করলে রোদ এড়িয়ে চলাই ভালো।   নিমপাতার চেয়ে হলুদের পরিমাণ কম হবে। নিমপাতা সিদ্ধ জল গোসলের জলর সাথে মিশিয়ে নিন। যাদের স্কিন ইরিটেশন এবং চুল্কানি আছে তাদের এতে আরাম হবে আর গায়ে দুর্গন্ধের ব্যাপারটাও কমে যাবে আশা করা যায়।দাঁতের সুস্থতায় নিমের ডাল দিয়ে মেসওয়াক করার প্রচলন রয়েছে সেই প্রাচীনকাল থেকেই। নিমের পাতা ও ছালের গুড়া কিংবা নিমের ডাল দিয়ে নিয়মিত দাত মাজলে দাঁত হবে মজবুত, রক্ষা পাবেন দন্ত রোগ থেকেও। কচি নিম ডাল দিয়ে দাঁত মাজলে দাঁত ভাল থাকে।

আরও পড়ুন-  

নিম পাতার নির্যাস জলতে মিশিয়ে বা নিম দিয়ে মুখ আলতোভাবে ধুয়ে ফেললে দাঁতের আক্রমণ, দাঁতের পচন, রক্তপাত ও মাড়ির ব্যথা কমে যায় এবং বুকে কফ জমে গেলে নিম পাতা বেটে এর ৩০ ফোঁটা রস সামান্য গরম জলতে মিশিয়ে দিনে তিন থেকে চারবার খেলে উপকার পাওয়া যায়।নিম ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে চমৎকার ভাবে কাজ করে। নিমের পাতা রক্তের সুগার লেভেল কমতে সাহায্য করে। এছাড়াও রক্ত নালীকে প্রসারিত করে রক্ত সংবহন উন্নত করে। ভালো ফল পেতে নিমের কচি পাতার রস প্রতিদিন সকালে খালি পেটে পান করুন। সকালে খালি পেটে ৫টি গোলমরিচ ও ১০টি নিম পাতা বেটে খেলে তা ডায়াবেটিস কমাতে সাহায্য করে।উজ্জ্বল,সুন্দর ও দৃষ্টিনন্দন চুল পেতে নিম পাতার অবদান অপরিসীম। চুলের খুসকি দূর করতে শ্যাম্পু করার সময় নিমপাতা সিদ্ধ জল দিয়ে চুল ম্যাসেজ করে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। খুসকি দূর হয়ে যাবে। চুলের জন্য নিম পাতার ব্যবহার অদ্বিতীয়।চুলে প্রতি সপ্তাহে ১ দিন নিমপাতা ভালো করে বেটে চুলে লাগিয়ে ১ ঘণ্টারমত রাখুন। এবার ১ ঘন্টা পর ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।দেখবেন চুল পড়া কমার সাথে সাথে চুল নরম ও কোমল হবে। মধু ও নিমপাতার রস একত্রে মিশিয়ে সপ্তাহে কমপক্ষে ৩ দিন চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগান। এবার ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপার শেম্পু করুন আর অধিকারী হোন ঝলমলে সুন্দর চুলের। এক চা চামচ আমলকির রস, এক চা চামচ নিমপাতার রস, এক চা চামচ লেবুর রস, প্রয়োজন অনুযায়ী টকদই মিশিয়ে সপ্তাহে ২ দিন চুলে লাগিয়ে আধঘণ্টা অপেক্ষা করারপর শ্যাম্পু করুননিমের ব্যাবহারে উকুনের সমস্যা দূর হয়। নিমের পেস্ট তৈরি করে মাথার তালুতে ম্যাসাজ করুন, তারপর মাথা শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন এবং উকুনের চিরুনি দিয়ে মাথা আঁচড়ান। সপ্তাহে ২-৩ বার ২ মাস এভাবে করুন। উকুন দূর হবে।।নিমের ব্যাকটেরিয়া নাশক ও ছত্রাক নাশক উপাদানের জন্য খুশকির চিকিৎসায় কার্যকরী ভূমিকা রাখে। নিম মাথার তালুর শুষ্কতা ও চুলকানি দূর করে। খুশকির চিকিৎসায় নিমের ব্যাকটেরিয়া নাশক ও ছত্রাক নাশক উপাদানের জন্য খুশকির চিকিৎসায় কার্যকরী ভূমিকা রাখে। নিম মাথার তালুর শুষ্কতা ও চুলকানি দূর করে। চার কাপ জলতে এক মুঠো নিমের পাতা দিয়ে গরম করতে হবে যতক্ষণ না জলটা সবুজ বর্ণ ধারণ করে এই জল ঠান্ডা হলে চুল শ্যাম্পু করার পর এই জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন।নিমের জল কন্ডিশনারের মত কাজ করবে। সপ্তাহে ২-৩বার ব্যবহার করুন যতদিন না খুশকি দূর হয়। আপনি ওজন কমাতে চান বিশেষ করে পেটের তাহলে নিমের ফুলের জুস খেতে হবে আপনাকে। নিম ফুল মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে শরীরের চর্বি ভাংতে সাহায্য করে।একমুঠো নিম ফুল চূর্ণ করে নিয়ে এর সাথে এক চামুচ মধু এবং আধা চামুচ লেবুর রস দিয়ে ভালোভাবে মিশান। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এই মিশ্রণটি পান করুন। দেখবেন কাজ হবে।অনেক সময় বুকে কফ জমে বুক ব্যথা করে। এ জন্য ৩০ ফোটা নিম পাতার রস সামান্য গরম জলতে মিশিয়ে দিতে ৩/৪ বার খেলে বুকের ব্যথা কমবে। গর্ভবতীদের জন্য ঔষধটি নিষেধ।ভারতীয় উপমহাদেশে ভাইরাল রোগ নিরাময়ে নিম ব্যবহৃত হয়। নিমপাতার রস ভাইরাস নির্মূল করে। আগে চিকেন পক্স, হাম ও অন্য চর্মরোগ হলে নিমপাতা বাটা লাগানো হতো। এছাড়াও নিমপাতা জলতে সিদ্ধ করে সে জল দিয়ে স্নান করলে ত্বকের জ্বালাপোড়া ও চুলকানি দূর হয়।নিমপাতা, নিমের বীজ ও বাকল বাতের ব্যথা সারাতে ওষুধ হিসেবে কাজ করে। বাতের ব্যথায় নিমের তেলের ম্যাসাজও বেশ উপকারী। নিমপাতা, নিমের বীজ ও বাকল বাতের ব্যথা সারাতে ওষুধ হিসেবে কাজ করে। বাতের ব্যথায় নিমের তেলের ম্যাসাজও বেশ উপকারী।যদি আপনার পায়ে কোন ফাঙ্গাল ইনফেকশন থাকে নিম ব্যবহার করুন। নিমে নিম্বিডল এবং জেডুনিন আছে যা ফাঙ্গাস ধ্বংস করতে পারে। নিম পাতার পেস্ট বানিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগালে নিরাময় লাভ করা যায়। আক্রান্ত স্থানে কয়েক ফোঁটা নিমের তেল দিনে তিনবার লাগালেও ভালো ফল পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন- 

কলিকাতা হারবাল ঢাকা বাংলাদেশ। 
পুরুষত্বহীনতা,যৌন দুর্বলতা বা দ্রুত বীর্যপাত সমস্যায় ভুগছেন,যৌন রোগ,লিঙ্গের সমস্যা, শুক্রমেহ,স্বপ্নদোষ ও দ্রুত বীর্যপাত এর,স্থ্যথায়ী চিকিৎসা,পুরুষলিঙ্গ ১/২ ইঞ্ছি লম্বা/মোটা,স্ট্রং করতে চান,যৌন শক্তি বৃদ্ধি করে এক রাতে ৩/৪ বার মিলন করতে চান? বীর্য গাড় করে,প্রসাবে ধাতু ক্ষয় দূর করতে চান,অল্প উত্তেজনায় যাদের লিঙ্গেরমাথায় লালাচলে আসে,এবং,অসময়ে বীর্যপাত, লিঙ্গের আগামোটা গোরা চিকন ও অন্যান্য যৌন রোগের সঠিক সমাধান।লজ্জা না করে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া মুক্ত ঔষধে সুচিকিৎসা ও ভাল পরামর্শ নিতে যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে। আমরা কলিকাতা হারবাল যৌন দুর্বলতাhttp://www.herbalbd.com কিডনি,লিভার,পাইলস,হাঁপানি,মেদভুড়ী,সাস্থ্যহীনতা,পুরুষদের যৌন সংক্রান্ত ও স্ত্রীরোগসমূহের হারবাল চিকিৎসায় বিশেষ পারদর্শী।পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীন,সফল এবং কলিকাতা হারবাল চিকিৎসা গ্রহণ করুন,যা আপনার সকল জটিল শারীরিক সমস্যা সমূহকে মূল থেকে নির্মূল করে আপনাকে পুরোপুরি সুস্থ করে তুলবে ইনশাল্লাহ।http://kolikataherbaldoctor.com/
সরাসরি ফোন করুন(01741-331199)
যৌন সংক্রান্ত সমস্যা?ও প্রশ্ন? কখনও কি ভেবেছেন দাম্পত্য জীবনে অশান্তির কারন কি? আপনি কি কঠিন যৌন রোগে আক্রান্ত? মিলনে সঙ্গীকে পূর্ন তৃপ্তি দিতে ব্যার্থ? আপনি কি বিয়ে করতে ভয় পাচ্চেন / অথবা বািয়ের পর স্ত্রীর কাছে লজ্জা পাচ্ছেন? স্ত্রী সহবাসে পুরোপরি অক্ষম? অতি দ্রুত বীর্যপাত হয়? যৌন রোগে মানসিক ভাবে চিন্তিত? গোপন অঙ্গ ছোট ও তুলার মতো নরম? চিকিৎসা ও ঔষধের প্রতি আস্থা হারিয়েছেন? দেশী-বিদেশী ঔষধ খেয়ে কোন উপকার পান নাই?যৌন রোগের সমাধান আছে কি-না বিশ্বাস হয় না? হালকা উত্তেজনায় গোপন অঙ্গের মাথায় বিজলের মত পানি আসে? তাহলে আজই যোগাযোগ করুন...
উত্তর একটাই সঠিক জায়গায় পরামর্শ ও চিকিৎসা নিন।স্থায়ীভাবে সুস্থ্য হয়ে সংসার,ধর্ম-কর্ম পালন করুন। তাহলেই আজেই যোগাযোগ করুন? এবং ফোন করুন। 01741-331199 ছোট,চিকন লিঙ্গের জন্য জিনসেং ম্যাসেজ ওয়েল ক্রীম ব্যবহারে লিঙ্গের সবল ও সতেজ এবং যাবতীয় দোষ-ত্রুটি দূর করে গোপনাঙ্গকে শক্ত ও সবল করে।ইহা এক প্রকার বাজীকরন জাতীয় শক্তিশালী মালিশ যাহা ব্যবহারে অনেক কার্যকর ও বহুত পরিতি এছাড়াও ডায়াবেটিস এর সুচিকিৎসা করা হয়। চিকন স্বাস্থ্য সবল ও মোটা করুন। যে সকল ভাই ও বোনেরা মনে করেন কোন দিন স্বাস্থ্যবান হবেন না,তাহারা আমাদের তৈরিকৃত দেশী বিদেশী গাছ গাছালির নির্যাস থেকে তৈরিকৃত ঔষধ খাওয়ার পর মুখের রুচি বহুগুনে বৃদ্ধি পাবে,ফলে খেতে পারবেন অনেক বেশী এবং হারানো স্বাস্থ্য ক্রমন্বয়ে বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী স্থায়ীভাবে ফিরে পাবেন হারানো স্বাস্থ্য এবং চেহারা থাকবে লাবন্য ও সৌর্ন্দয্যময়।

আরও পড়ুন- 

প্রবাসী ভাইদের জন্য.অত্যন্ত সু-সংবাদ
যে সব প্রবাসী ভাইয়েরা আত্মীয়-স্বজনকে ছেড়ে নিজের জীবন ও পরিবারের সুখ-শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য সুদুর প্রবাসে দিন রাত অকান্ত পরিশ্রম করে অর্থ আয় করছেন কিন্তু নিজের কিছু ভুল ক্রটির কারণে বিভিন্ন প্রকার জটিল যৌন সমস্যা নিয়ে বিদেশে আছেন মনের কষ্ট কাউকে বলতে পারছেন না,বাবা-মা বিয়ে করাবে তাই ভয়ে দেশে আসছেন না।তাদের কাছে আমার বিশেষ অনুরোধ আপনার কষ্টার্জিত অর্থ যাতে বিফলে না যায় ।তার জন্য ১০০% নিশ্চয়তা দিচ্ছি জীবনের শেষ চিকিৎসা মনে করে যারা বিভিন্ন জটিল ও যৌন সমস্যায় ভুগছেন তারা একবারের জন্য হলেও আমাদের স্বনামধন্য প্রতিষ্টানে আপনার সমস্যার পূর্ণ বিবরণ জানিয়ে পত্র লিখুন অথবা ফোনে আলাপ করুণ বিস্তারিত আরও কিছু জানার জন্য ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করুণ।যৌন সংক্রান্ত যেকোন সমস্যায় নিঃসংকোচে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার সমস্যা নির্মূলে যথাযথ ট্রিটমেন্ট দিতে আমরা বদ্ধপরিকর।> আমাদের সেবা সমূহ :-গবেষণালব্ধ আধুনিক হারবাল পদ্ধতিতে যে সকল রোগের চিকিৎসা করা *হাঁপানীএজমা/শ্বাসকষ্ট/পুরাতন কাঁশি* যৌন রোগ/ অক্ষমতা/স্থায়ীত্বহীনতা* ধাতু দূর্বলতা/ধাতু তরল/অতিরিক্ত স্বপ্নদোষ* প্রস্রাবের আগে ও পরে ধাতুক্ষয়* গনোরিয়া/প্রস্রাবের রাস্তায় পুজ পড়া * সিফিলিস/প্রসাবে জ্বালা যন্ত্রনা* গ্যাষ্ট্রিক/বুক জ্বলা/কোষ্টকাঠিন্য * জন্ডিস অরুচি/বদহজম * ব্রণ/চুলকানী/চর্মরোগ পাইলস্ অর্শ্ব* নতুন ও পুরাতন আমাশয়* ডায়াবেটিস/ঘন ঘন প্রস্রাব * অনিয়মিত মাসিক/সাদাস্রাব (লিকুরিয়া) স্তনের যে কোন সমস্যা * হেপটাইটিস ভি-ভাইরাস VDRL-Reactive,* HBS Ag (+ve) ১০০ % গ্যারান্টিসহ সু-চিকিৎসা দেওয়া হয়।=> শ্বাস-কষ্ট হাঁপানির লক্ষন ও স্থায়ী চিকিৎসা: (১০০% বিফলে ফেরত যোগ্য।) কলিকাতা হারবাল হাকিম ডা: মো: মাহাবুবুর রহমান!(রেজিষ্টার্ড হারবাল স্পেশালিস্ট যৌন. চর্ম .সাস্থ্যহীনতা.মেদভুড়ি. হাঁপানি,বাত বেথা. হেপাটাইটিস (বি -ভাইরাস). অশ্ব গেজ. ও মহিলা রোগে (17 বৎসরের অভিঙ্গতা) বি:দ্র: আপনার কষ্টার্জিত অর্থ বিনষ্ট। না হওয়ার আগেই সঠিক সিদ্ধান্ত নিবেন। ভালভাবে ডা: চেম্বার,ডা:এর শিক্ষাগত যোগ্যতা যাচাই বাচাই করে চিকিৎসা নিবেন। ফেইসবুকে বা অসত্য প্রচারনা থেকে এড়িয়ে চলুন।সরাসরি যোগাযোগ-এর ঠিকানা মোঃ পুর বি.আর.টি.সি বাসস্ট্যান্ড ঢাকা-১২০৭ হট লাইন, 01763663333 ডাঃ মোঃ মাহাবুবুর রহমান ইমু নাম্বার 01741331199 বাংলাদেশের, 

আরও পড়ুন-  

আপনার সাস্থ সেবা নিশ্চিত করতে  সরাসরি ডাক্তারের সাথে কথা বলুন। কলিকাতা হারবাল কেয়ার  একটি আধুনিক আয়ুর্বেদ চিকিৎসা কেন্দ্র।

tag: 

 কলিকাতা হারবাল  কলিকাতা হারবাল কেয়ার   কলিকাতা হারবাল ডাক্তার  kolikata herbal care kolikata herbal kolikata herbal dhaka kolikata herbal doctor kolikata herbal medicine original kolikata herbal kolikata herbal treatment kolikata herbal mohammadpur popular kolikata harbal  কলিকাতা হারবাল ঔষধ